Image

একদিনের শ্রীমংগল ভ্রমন

> অনেকেই সময় সল্পতার জন্য সিলেট ভ্রমনের সাথে শ্রীমংগলে একটা শর্ট ট্রিপ দিতে চান। যদিও একদিনে সবকিছু ভালভাবে কভার করা যায় না! আপনি যদি সিলেট এর ট্রিপ এ প্রথমদিন শ্রীমঙ্গল ঘুরতে চান তাহলে এই লেখাটি আপনাকে সাহায্য করবে।

__ এই একদিনের ট্র‍্যুরে আপনি কি কি স্পট কভার করতে পারবেনঃ

১. লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান
২. বিটি আর আই মিউজিয়াম
৩. চা বাগান গুলো ( নুরজাহান মাস্ট )
৪. সীতেশ বাবুর চিড়িয়াখানা
৫. আদী নীল কন্ঠ চা এর কেবিন
৬. মনিপুরী পাড়া
৭. বধ্যভূমি।

শ্রীমংগল আসার পরই আপনি চাইলে সারা দিনের জন্য একটা Cng রির্জাব করে নিতে পারেন এইগুলা ঘুরার জন্য। সেই ক্ষেত্রে ভাড়া ৮০০-১০০০ টাকা নিবে। অথবা সলো বা বাজেট ট্যুর হলে প্রথমে লাউছড়া, বিটি আর আই, ফিনলে চা বাগান, বধ্যভুমি, নীলকন্ঠ এবং মনিপুরি বস্তি ঘুরার জন্য শ্রীমংগল এর চৌমহনী পয়েন্ট থেকে টমটম/ নসিমন লোকাল হিসেবে ভাড়া নিতে পারেন। রিজার্ভ না নিলেও লোকাল এ করেও ভালভাবে এইগুলা ঘুরতে পারবেন। কারন প্রতিটি স্পট এর অনেক এই টাইপ এর গাড়ি পাবেন। প্রথমেই পানসি/পাচভাই তে খাবার সেরে চলে বিটি আর আই মিউজিয়াম এবং চা বাগানগুলো ঘুরে চলে যাবেন লাউয়াছড়াতে। লাউয়াছড়াতে ঘন্টা খানেক থেকে নীলকণ্ঠ চা কেবিন এ চা খেয়ে মনিপুরি বস্তি দেঝতে যাবেন। আদি নীলকন্ঠ তে স্পেশাল দু চা টা অব্যশই টেস্ট করে দেখবেন। মনিপুরি পাড়া চাইলে এখানে আপনার প্রয়োজনীয় কেনাকাটা করে নিতে পারেন। দুপুরের লাঞ্চ টা সেরে বিকেলের দিকে বধ্যভূমি ৭১ একটু ঢু মেরে আসবেন। তারপর শ্রীমঙ্গল এর হবিগঞ্জ বাস স্টেশন থেকে সিলেট এর উদ্দেশ্য রওয়ানা দিলেন।

কিছু তথ্য

* শ্রীমঙ্গল এর চা পাতা কিনতে যাওয়ার সময় অব্যশই গ্রেড দেখে কিনবেন।

* লাউয়াছড়া গভীর জংগলের ভিতরে একা একা যাবেন না।

-- ভ্রমণ এর সময় পরিবেশের যাতে কোন ক্ষয়ক্ষতি না হয় সেদিকে সর্বোচ্চ খেয়াল রাখবেন।

ধন্যবাদ

0 comments

Leave a comment

Login To Comment